আল-হান্নান 3
SYLB

আল-হান্নান 3

3
নয়া জনম আর একিনর বেয়াপারে তালিম
1ফরিশি অকলর মাজে নীকদীম নামে ইহুদি অকলর একজন নেতা আছলা। 2একদিন রাইত তাইন আইয়া ইছারে কইলা, “হুজুর, আমরা জানি, আপনে একজন উস্তাদ হিসাবে আল্লার গেছ থাকি আইছইন। আপনে যেতা কেরামতি কাম কররা, আল্লা লগে না থাকলে কেউ ইতা করতো পারে না।” 3তাইন নীকদীমরে কইলা, “আমি আপনারে হাছাউ কইরাম, নয়া করি জনম না লইলে কেউ আল্লার বাদশাই দেখে না।” 4তেউ নীকদীমে তানরে কইলা, “মানুষ বুড়া অইগেলে হিরবার জনম লয় কিলা? দুছরা বার মাʼর পেটো হামাইয়া জনম লয় নি?” 5ইছায় জুয়াপ দিলা, “আমি আপনারে হাছাউ কইরাম, পানি আর পাক রুহ থাকি জনম না অইলে কেউ আল্লার বাদশাইত হামাইতো পারে না। 6রক্ত-মাংস থাকি যেতার জনম অয়, ইতা তো খালি রক্ত-মাংস। আর পাক রুহ থাকি যেতার জনম, ইতা রুহ। 7আমি যে আপনারে কইলাম, নয়া করি জনম লওয়া জরুর, এতে তাইজ্জুব অইবা না। 8বাতাস তার যেবায় ইচ্ছা অবায় যায়, আর আপনে তার আওয়াজ হুনইন, অইলে কই থাকি আয় আর কই যায়, ইখান জানইন না। তে পাক রুহ থাকি যেরার জনম অইছে, তারার বেলায়ও অলাখান অয়।”
9নীকদীমে ইছারে জিকাইলা, “ইকটা কিলা অইতো পারে?” 10ইছায় জুয়াপ দিলা, “আপনে বনি ইছরাইলর উস্তাদ অইয়াও ইতা বুজইন না নি? 11আপনারে হাছাউ কইরাম, আমরা যেতা জানি অখানউ কই, আর যেতা দেখছি অউ বেয়াপারে সাক্ষি দেই। অইলে আপনারা আমরার সাক্ষি মানইন না। 12আমি আপনারারে দুনিয়াবি বেয়াপারে কইলে যেবলা একিন করইন না, তে বেহেস্তি বেয়াপার কইলে কিলা একিন করবা? 13যেইন বেহেস্তো থাকইন আর বেহেস্ত থাকি আইছইন, হউ বিন-আদম ছাড়া আর কেউ বেহেস্তো উঠছইন না।
14“মরুভুমির মাজে মুছা নবীয়ে যেলা হাফরে উচাত তুলছিলা, অলা আমি বিন-আদমরেও উচাত তুলা অইবো। 15যাতে যে জনে আমার উপরে ইমান আনে, হে আখেরি জিন্দেগি হাছিল করে। 16আল্লা পাকে দুনিয়ার মানষরে অতো বেশি মায়া করলা, ই মায়ার খাতিরে তান খাছ মায়ার জনরে দান করলা। যে মানষে অউ মায়ার জনর উপরে ইমান আনে, হে বিনাশ অয় না, বরং আখেরি জিন্দেগি হাছিল করে।
17“আল্লায় মানষরে দুষি পরমান করার লাগি তান মায়ার জনরে দুনিয়াত পাঠাইছইন না। অউ মায়ার জনর খাতিরে মানষে যাতে নাজাত পায়, এরলাগিউ পাঠাইছইন। 18যে জনে অউ মায়ার জনর উপরে ইমান আনে, তার কুনু বিচার অয় না, অইলে যে ইমান আনে না, তারে আগেউ দুষি সাইবস্তো করা অইগেছে। কারন আল্লার একমাত্র মায়ার জন ইবনুল্লার উপরে হে ইমান আনছে না। 19তারে দুষি সাইবস্তো করা অইছে, কারন দুনিয়াত নুর জাইর অইছে। অইলে মানষর বদ কামর লাগি নুর থাকি আন্দাইররে বেশি ভালা পাইছে। 20যে মানষে বদ কাম করে, হে নুররে ঘিন্নায়, তার বদ কাম অকল জাইর অইযিবো করি হে নুরর গেছে আয় না। 21অইলে যে জন হক-হালালির পথে চলে, হে নুরর গেছে আয়, যাতে তার হকল কাম আল্লার মুনশা মাফিক অইছে করি পরমান অয়।”
এহিয়া নবীয়ে ইছার বেয়াপারে কইরা
22এরবাদে হজরত ইছা আর সাহাবি অকল এহুদিয়া এলাকাত আইলা। হিনো তাইন সাহাবি অকলর লগে কিছু দিন কাটাইলা আর মানষরে তৌবার গোছল করাইলা। 23অউ সময় সালিম নামর এক গাউর কান্দাত ঐনোন নামর এক জাগাত এহিয়ায়ও তৌবার গোছল করানিত আছলা। হউ জাগাত বউত পানি থাকায় দলে দলে মানুষ আইয়া তৌবার গোছল লইলা। 24এহিয়া নবীরে অউ সময়ও জেলো বন্দি করা অইছে না।
25অউ সময় শরিয়ত মাফিক পাক-ছাফ অওয়ার বেয়াপার লইয়া, এহিয়া নবীর উম্মত অকলে ইহুদির এক আলিমর লগে তর্ক লাগাই দিলা। 26বাদে তাইন তাইন হজরত এহিয়ার গেছে আইয়া কইলা, “হুজুর, যেইন জর্দান গাংগর হপারো আপনার লগে আছলা, আর যার বেয়াপারে আপনে সাক্ষি দিছলা, দেখরা নি, হকল মানুষ তান গেছে যাইরাগি আর তাইন এরারে তৌবার গোছল দিরা।” 27ইখান হুনিয়া এহিয়ায় কইলা, “বেহেস্ত থাকি দেওয়া না অইলে কেউ কুন্তা পায় না। 28তুমরাউ তো হুনছো, আমি কইছি, আমি আল-মসী নায়, অইলে তান আগে আমারে পাঠানি অইছে। 29যার গেছে কইনারে বিয়া দেওয়া অয়, এইনউ নশা। নশার দুস্তে খালি উবাইয়া নশার মাত হুনইন আর তান গলার আওয়াজ হুনিয়া খুশি অইন। অউ লাখান আমার খুশিও আইজ পুরা অইলো। 30তানরে বড় অইতে অইবো আর আমি হরি যাইতাম অইবো।”
বেহেস্ত থাকি যেইন আইছইন
31যেইন উপর থাকি আইন, এইন হকলর উপরে। অইলে যে দুনিয়া থাকি আয়, হে তো দুনিয়ার, হে দুনিয়াবি মাতউ মাতে। যেইন বেহেস্ত থাকি আইন, তান আসন হকলর উপরে। 32তাইন হনো যেতা দেখছইন আর হুনছইন, অতার সাক্ষিউ দেইন। কেউ তান সাক্ষি মানে না। 33অইলে যে জনে তান সাক্ষি কবুল করছে, হে অখান দিয়াউ পরমান করে, আল্লার কালামউ হাছা। 34আল্লায় যেনরে পাঠাইছইন, তাইন আল্লার কালামউ বাতাইন, কারন আল্লায় তানরে পুরাপুর করিয়া পাক রুহ দান করইন। 35বাফে তান পুতরে, মানি তান খাছ মায়ার জনরে মায়া করইন আর তান আতোউ হকলতা দিছইন। 36যে মানষে আল্লার খাছ মায়ার জনর উপরে ইমান আনছে, হে আখেরি জিন্দেগি পাইলিছে। অইলে যে তানরে মানে না, হে কুনুমন্তেউ আখের পাইতো নায় বরং তার উপরে আল্লার গজব পড়ব।